Uncategorized

বিশ্বের শীর্ষ ধনীর আসনে আবারো বসলেন বিল গেটস

বিশ্বের শীর্ষ ধনীর আসনে আবারো বসলেন বিল গেটস

Bill Gates sits again in the world’s richest seat

The world's richest

আমাজনের প্রধান নির্বাহী জেফ বেজোসকে হটিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ধনীর মুকুট আবার মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের মাথায়। ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার সূচক অনুযায়ী, বিল গেটসের বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ১১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। গতকাল শুক্রবার সম্পদের হিসাবে তিনি বেজোসকে টপকে যান।

দুই বছরের মধ্যে এবারই প্রথম মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিশ্বের শীর্ষ ধনীর আসনে বসলেন। এর আগে অবশ্য গত অক্টোবর মাসে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য তিনি বেজোসকে টপকে যান। ওই সময় আমাজন জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের প্রান্তিক আয় ঘোষণার সময় ২৮ শতাংশ কম মুনাফার ঘোষণা দিয়েছিল। এতে সম্পদের হিসাবে পিছিয়ে পড়েন বেজোস।

বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোস

আমাজনের প্রধান নির্বাহী জেফ বেজোসকে হটিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ধনীর মুকুট আবার মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের মাথায়। ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার সূচক অনুযায়ী, বিল গেটসের বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ১১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। গতকাল শুক্রবার সম্পদের হিসাবে তিনি বেজোসকে টপকে যান।

দুই বছরের মধ্যে এবারই প্রথম মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিশ্বের শীর্ষ ধনীর আসনে বসলেন। এর আগে অবশ্য গত অক্টোবর মাসে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য তিনি বেজোসকে টপকে যান। ওই সময় আমাজন জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের প্রান্তিক আয় ঘোষণার সময় ২৮ শতাংশ কম মুনাফার ঘোষণা দিয়েছিল। এতে সম্পদের হিসাবে পিছিয়ে পড়েন বেজোস।

The world's richest

মাইক্রোসফট

চলতি বছর মাইক্রোসফটের শেয়ারের দাম ৪৮ শতাংশ বেড়ে যাওয়ায় বিল গেটসের কপাল খুলেছে। এতে মাইক্রোসফটে থাকা তাঁর শেয়ারের দাম বেড়েছে। গত মাসেই আমাজনকে হারিয়ে পেন্টাগনের ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের ক্লাউড কম্পিউটিং চুক্তি করেছে মাইক্রোসফট। এটিও গেটস ও বেজোসের মধ্যেকার সম্পদের মধ্যে বাড়তি নাটক যোগ করেছে।

সম্প্রতি স্ত্রী ম্যাকেঞ্জি বেজোসের সঙ্গে ছাড়াছাড়ির সময় আমাজনের বড় একটি অংশের শেয়ার দিতে হয়েছে বেজোসকে। বর্তমানে বিশ্বের শীর্ষ ধনী বেজোসের সম্পদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১০৮ দশমিক ৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

২৬ অক্টোবর আমাজনের শেয়ারের দাম ৭ শতাংশ কমে গেলে ক্ষণিকের জন্য বিশ্বের শীর্ষ ধনীর আসন হারান বেজোস। শুক্রবার আবার সাময়িকভাবে শীর্ষ স্থান ফিরে পান তিনি। সামগ্রিকভাবে এ বছরটা আমাজনের জন্য ভালো যাচ্ছে না। বিবাহবিচ্ছেদের কারণে বেজোসের গাঁট থেকে প্রায় ১ হাজার ৪০০ কোটি ডলার বেরিয়ে গেছে। আমাজনে বেজোস দম্পতির যে শেয়ার ছিল।

বিচ্ছেদের বন্দোবস্তের কারণে বেজোসের স্ত্রী ম্যাকেঞ্জি তাঁর ২৫ শতাংশ পেয়েছেন। এতে আমাজনে ম্যাকেঞ্জির শেয়ারের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪ শতাংশ। তাঁর সম্পদের পরিমাণ এখন ৩৮ বিলিয়ন ডলার।

আমাজন পণ্য সরবরাহ ব্যবস্থা উন্নত করতে ৮০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করেছে। বিশ্লেষকেরা অবশ্য এটাকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছেন।

অন্যদিকে ব্লুমবার্গের হিসাব অনুসারে এ বছর বিল গেটসের শেয়ারের দাম বেড়েছে ১৭ শতাংশ। মাইক্রোসফটে তাঁর শেয়ারের পরিমাণ ১ শতাংশ। ২০১৯ সালে তাঁর শেয়ারের দাম বেড়েছে ৪০ শতাংশ।

এর আগে বেজোসের সম্পদের পরিমাণ কমে এসে দাঁড়ায় ১০ হাজার ৩৯০ কোটি মার্কিন ডলারে। আর মাইক্রোসফটের মালিক বিল গেটসের বর্তমান সম্পদ ১০ হাজার ৫৫৭ কোটি মার্কিন ডলার।

২০১৮ সালে এ রকম ঘটনা আরও একবার ঘটেছিল। সেবার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই গেটসকে হটিয়ে আবারও বিশ্বের শীর্ষ ধনীর স্থান পুনরুদ্ধার করেন বেজোস। ওই সময় প্রথম কোনো ব্যক্তি হিসেবে ১৬ হাজার কোটি মার্কিন ডলার সম্পদের মাইলফলকে পৌঁছান বেজোস। এ বছরের এপ্রিলেই স্ত্রী ম্যাকেঞ্জি বেজোসের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে তাঁর। তাতে স্ত্রীকে নিজের সংস্থার ৩ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলারের শেয়ার ছেড়ে দেন বেজোস।

The world's richest man

এর আগে বিশ্বের শীর্ষ ধনীর আসনে বেজোস

ফোর্বস ম্যাগাজিনের ধনীর তালিকায় গতকাল সন্ধ্যায় বেজোসের সম্পদের পরিমাণ ছিল ১০৯ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার। আর দ্বিতীয় বিশ্বের শীর্ষ ধনী বিল গেটসের সম্পদ ছিল ১০৫ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার।

অন্যদিকে ব্লুমবার্গের হিসাব অনুসারে এ বছর বিল গেটসের শেয়ারের দাম বেড়েছে ১৭ শতাংশ। মাইক্রোসফটে তাঁর শেয়ারের পরিমাণ ১ শতাংশ। ২০১৯ সালে তাঁর শেয়ারের দাম বেড়েছে ৪০ শতাংশ।

ফরাসি ধনী ও বিলাসদ্রব্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এলভিএমএইচের প্রধান নির্বাহী বের্নার্ড আর্নো ১০২ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলার নিয়ে ফোর্বস-এর তালিকায় তৃতীয় স্থানে আছেন।

ফোর্বস-এর তালিকায় ৮৩ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার নিয়ে চতুর্থ স্থানে ছিলেন মার্কিন বিনিয়োগকারী ওয়ারেন বাফেট। ৭০ বিলিয়ন ডলার নিয়ে পাঁচ নম্বরে ছিলেন আমানিকো ওরতেগা। ষষ্ঠ স্থানে আছেন ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ

তাঁর সম্পদের পরিমাণ ৬৯ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার। ৬৬ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলার নিয়ে সপ্তম স্থানে ছিলেন ল্যারি এলিসন। অষ্টম স্থানে থাকা কার্লোস স্লিম হেলুর সম্পদের পরিমাণ ৬১ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার।

ফোর্বস-এর তালিকার নবম স্থানে থাকা ল্যারি পেজের সম্পদের পরিমাণ ৫৭ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার এবং দশম স্থানে থাকা সের্জেই ব্রিনের সম্পদের পরিমাণ ৫৫ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার।

পোস্টটি সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিবেন এবং Factarticle.com এর সঙ্গেই থাকবেন। 

BY:Factarticle.com

Comments

Tags
Back to top button
Close
Close