Online learnning
Education

জনপ্রিয় হচ্ছে অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম,দেখে নিন!

জনপ্রিয় হচ্ছে অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম,দেখে নিন!

Being the Popular Online Education Platform, Take a Look!

আমরা আজকের দিনে এতটাই সুযোগ সুবিধা পাচ্ছি যা আজ থেকে ১০ বছর আগে এমন সুযোগ সুবিধা ছিল না।এখনকার দিনে আমরা স্কুলে না গিয়েও আমরা বিভিন্ন অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম এর মাধ্যমে অনেক কিছু শিখতে পারি যা তথ্য প্রযুক্তির কল্যাণেই কেবল সম্ভব হয়েছে।এখনকার দিনে বলা হয়ে থাকে যে,একজন শিক্ষকের চাইতে গুগল স্মার্ট।Online Education Platform

অনলাইনে শিক্ষা 

অনলাইন কোর্স প্ল্যাটফর্মগুলি হ’লো এক ধরণের লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (এলএমএস) যা ব্যবহারকারীদের ডিজিটাল ক্লাসে অ্যাক্সেস সরবরাহ করে।

এই ভার্চুয়াল কোর্সগুলি অনেক উপায়ে অফলাইন ক্লাসের অনুরূপ,একজন প্রশিক্ষক ভিডিও, চিত্র, পাঠ্য, অডিও এবং পিডিএফ ফাইলগুলির মাধ্যমে একটি আকর্ষণীয় শিক্ষামূলক অভিজ্ঞতা সরবরাহ করে।শিক্ষার্থীরা এলএমএস সফ্টওয়্যারটি অনুসরণ করে নোট নেয়, অনুশীলন করে এবং তাদের জ্ঞান পরীক্ষা করতে সম্পূর্ণ পরীক্ষা দেয়।

অনলাইনে পড়াশোনা

আপনার স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটটি ব্যবহার করে শিখতে বোধগম্য।এটি এমন একটি ডিভাইস যা প্রায়শই আপনার সাথে থাকে যার অর্থ আপনি আপনার শিক্ষাগুলি যে কোনও জায়গায় নিতে পারবেন এবং আপনাকে কী জানা দরকার তা শেখানোর জন্য গুগলে একটি মেট্রিক টন সংস্থান রয়েছে।

কিছু শেখার অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম অন্যের চেয়ে ভাল তবে তারা আপনাকে এমন কিছু জানতে সহায়তা করার একই লক্ষ্য অর্জন করে যা আপনি আগে জানেন না। আপনি যদি আপনার অগ্রগতি দ্রুত ট্র্যাক করতে চান এবং ঠিক যে কোনও কিছু সম্পর্কে জানতে চান তবে এখানে অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। 

অনলাইন শিক্ষা 

তথ্যপ্রযুক্তির কল্যাণকর অগ্রযাত্রার এ সময়ে লেখাপড়া আরও বেশি সহজ এবং তথ্য সমৃদ্ধ হয়েছে। যে কোনো বিষয়ে শেখার জন্য স্কুল-কলেজে না গিয়েও সহজে অনলাইনে কোর্সের মাধ্যমে জানা যায়। এখন ঘরে বসে বিভিন্ন বিষয়ে বিশেষায়িত কোর্স করা যায় এবং সার্টিফিকেটও নেয়া যায় অনলাইনে।

অনলাইনে স্টাডি, কোর্সের সাইট এবং প্রতিষ্ঠানগুলো পৃথিবীর সব দেশের সব রকম মানুষের জন্যই উন্মুক্ত। অনলাইন কোর্সের মাধ্যমে নামিদামি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ক্লাস করা যায় সহজেই।

আজকের আয়োজনে অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম কোর্স নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ 

পড়াশোনা বিষয়ক অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম বা শিক্ষার ওয়েবসাইট

এডেক্স

২০১২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় অনলাইনে শিক্ষা দেয়ার এই ফ্লাটফরম ইডিএক্স। হাভার্ড থেকে ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি (MIT), বলতে গেলে প্রায় সব বিখ্যাত ইউনিভার্সিটির শিক্ষকদের অধীনে এখানে কোর্স করতে পারবেন। ১৪০টিরও বেশি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ওয়েবসাইটটিতে কোর্স পরিচালনা করে থাকে।Online Education Platform২০১৮ সালের হিসাব অনুযায়ী, ইডিএক্স রেজিস্টার্ড শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১ কোটি ৮০ লাখ। প্রত্যেক সপ্তাহে শিক্ষার্থীদের রিডিং ম্যাটেলিয়াল দেয়া হয়। ইডিএক্স নন-প্রফিট অর্গানাইজেশন যেখানে অনলাইনে বিনামূল্যে অনেক ধরনের কোর্সের ব্যবস্থা রয়েছে। তবে কোর্স সার্টিফিকেট পেতে গুনতে হবে টাকা।

ইডিএক্স কে আরও ছড়িয়ে দিতে ও শিক্ষকদের অনুপ্রাণিত করতে ব্যবহার করে এই টাকা। আপনি চাইলে দেখতে পারেন- ঠিকানা : Edex 

Coursera/ কোর্সেরা

কোর্সেরা হলো একটি অনলাইন স্কুল। এটিতে আপনি বিভিন্ন ধরণের পাঠ এবং ক্লাস নিতে পারেন। প্রত্যেকে আপনাকে আলাদা আলাদা বিষয়ে শিক্ষিত করে। গণিত ও বিজ্ঞান ক্লাস করতে পারেন বা পাঠের ভিডিও সামগ্রী নিয়েও শিখতে পারেন। কিছু কোর্স রয়েছে বিনামূল্যে। আবার কিছু কোর্সের জন্য আপনাকে অর্থ প্রদান করতে হবে।

জনপ্রিয় অনলাইন লার্নিং প্ল্যাটফরম কোর্সেরা ২০১২ সালে প্রতিষ্ঠা করেন স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্সের অধ্যাপক অ্যান্ড্রু এনজি ও ড্যাফেন কোলার। ইঞ্জিনিয়ারিং, হিউম্যানিটিজ, মেডিসিন, বায়োলজি, ম্যাথমেটিক্স, বিজনেস, ডিজিটাল মার্কেটিং, ডেটা সায়েন্সসহ এ সাইটে কোর্সের সংখ্যা প্রায় ৩ হাজার। আমেরিকাসহ বিশ্বের বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসররা এখানে অনলাইন ক্লাস নিয়ে থাকেন।

শুধু তাই নয়, কোর্স শেষে সেসব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কোর্সের ওপর অফিশিয়াল সার্টিফিকেটও সংগ্রহ করারও ব্যবস্থা রয়েছে। আর এ কোর্সগুলোর বেশিরভাগই করা যায় একদম বিনামূল্যে কিংবা অনেক কম খরচে। ২০১১ সালে স্ট্যানফোর্ডে একটি কোর্স অনলাইনে পরিচালনার পর তারা কোর্সেরা প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নেন। কোর্সেরা প্রতিষ্ঠার পর তারা স্ট্যানফোর্ডের চাকরি ছেড়ে দেন। ঠিকানা : coursera 

ইংরেজি, স্প্যানিশ, চায়নিজ, রুশ, জার্মানিসহ ১২ ভাষায় কোর্স করার সুযোগ রয়েছে এই ওয়েবসাইটে। যেখানে শিক্ষার্থীরা কম্পিউটার সায়েন্স, চিকিৎসাবিজ্ঞান, গণিত, পরিসংখ্যান, অর্থনীতিসহ ২৮টি দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্স করার সুযোগ পান। অনলাইন কোর্সের বিশেষায়িত ওয়েবসাইটটিতে বর্তমানে
প্রায় দুই হাজার কোর্স করানো হচ্ছে!

শুধু এডেক্স বা কোর্সেরাই নয়, এ ছাড়া আরও বিভিন্ন ওয়েবসাইট আছে।

গুগলের কল্যাণে সহজেই সেসবের খোঁজ মিলবে কোর্সেরাতে

1.কম্পিউটার বিজ্ঞান: প্রোগ্রামিং, মোবাইল এবং ওয়েব বিকাশ

2.ডেটা বিজ্ঞান: মেশিন লার্নিং, পরিসংখ্যান, সম্ভাবনা এবং ডেটা

3.ব্যবসায়: অ্যাকাউন্টিং, বিপণন এবং উদ্যোক্তা

4.বিজ্ঞান: রোবোটিক্স, রসায়ন, পুষ্টি এবং মেডিসিন

5.ডিজাইন, ফটোগ্রাফি, সঙ্গীত এবং ক্রিয়েটিভ রাইটিং সহ আরও আরও অনেক কিছু।

স্কিলশেয়ার

স্কিলশেয়ার এমন একটি প্ল্যাটফরম যেখান থেকে ব্যবসা, প্রযুক্তি, ডিজাইন এবং আরও অনেক কিছুর হাজার হাজার ক্লাস রয়েছে। যে কেউ চাইলেই ঘরে বসে কয়েক মিলিয়ন সদস্যের এ প্ল্যাটফরম থেকে যে কোনো কোর্স করতে পারে।

এখানে গ্রাফিক্স ডিজাইন, ক্রিয়েটিভ রাইটিং, ফটোগ্রাফি ও ইলাস্ট্রেটরসহ বেশ কিছু বিষয়ে কোর্স করা যায়। সব কিছু শেখানো হয় হাতে কলমে। বিশেষজ্ঞরা নির্দিষ্ট একটি বিষয়ের আদ্যোপান্ত নিয়ে কথা বলেন। নির্দিষ্ট বিষয় সম্পর্কিত একটি প্রজেক্ট নিজে করে দেখাতে পারলেই শেষ হয় কোর্স।

স্কিলশেয়ার প্রতিষ্ঠিত হয় ২০১০ সালে। বর্তমানে এতে ২৭ হাজার প্রিমিয়াম ক্লাস ও ২ হাজার ফ্রি ক্লাস অফার করছে তারা। ঠিকানা : skillshareOnline Education Platform

ইউডেমি

কোর্স করার খরচ অন্য সাইটগুলোর তুলনায় একটু বেশি ইউডেমি তে। একেক ধরনের কোর্সের জন্য একেক রকম খরচ, আর তা ১০ ডলার থেকে শুরু করে ৫০০ ডলার পর্যন্ত। তবে টফবসুতে সবচেয়ে জনপ্রিয় কোর্স হল ‘বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলোজি’, যার জন্য গুনতে হবে ১০০ ডলার।

অগমেন্টেড রিয়েলিটি সফটওয়্যার ব্যবহার কিংবা এআর অ্যানিমেশন তৈরি করা এসব বিষয়ে শিখতে চাইলে ঢু মারা যেতে পারে ইউডেমির ওয়েবসাইটটিতে। এখানে টুডি ও থ্রিডি গেইম তৈরির বিষয়ও নির্দেশনা মেলে। ঠিকানা – udemy

ইউএন সিসি-লার্ন

জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে ইউএন ক্লাইমেট চেঞ্জ-ইলার্ন নামে একটি ওয়েবসাইট আছে জাতিসংঘের। এখানকার প্রতিটি কোর্সই ফ্রিতে করা যায়। বর্তমানে ওয়েবসাইটটির রেজিস্ট্রার্ড ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২ লাখ ২৩ হাজার।দেখে নিতে পারেন- Uncc

ওপেন কালচার

পৃথিবীর বিভিন্ন সেরা সব শিক্ষাঙ্গনের কোর্সগুলো এখানে পাওয়া যাবে। প্রায় ১৩০০ কোর্স রয়েছে এবং প্রায় ৪৫ হাজার ঘণ্টা অডিও এবং ভিডিওর লেকচার যা কেউ চাইলেই সম্পূর্ণ ফ্রিতে নিতে পারেন। ঠিকানা : openculture

আমাজন কিন্ডল

অ্যামাজন কিন্ডল হচ্ছে অন্যতম প্রচলিত অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম। পরিষেবাটিতে অগণিত রেফারেন্স গাইড রয়েছে।

আমাজন কিন্ডল বলতে বোঝায় Amazon.com উদ্ভাবিত ও বিপণনকৃত এক ধরনের ই-বুক। আমাজন কিন্ডল ব্যবহার করে একজন পাঠক খুব সহজে ডিজিটাল ফরমেটে থাকা বই,ম্যাগাজিন,সংবাদপত্র ইত্যাদি যেকোনো ধরনের লিখিত নথি পড়তে পারেন।

পড়ার সুবিধা ছাড়াও কিন্ডল ব্যবহার করে একজন ব্যাবহারকারী ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমাজন স্টোরে থাকা কয়েক লক্ষ বই থেকে তার পছন্দের বই কিনতে,জমা রাখতে ও ডাউনলোড করতে পারেন।

স্মার্টফোনে ই-বুক পড়ার সময় ই-মেইল, সোশ্যাল মিডিয়া ম্যাসেজিং অ্যাপগুলোর নোটিফিকেশন, ফোন-কল আপনার বইয়ের প্রতি মনোযোগে ঘাটতি তৈরির জন্য যথেষ্ট।কিন্তু ই-রিডারগুলোর ডিজাইনই যেহেতু শুধুমাত্র বই পড়ার জন্য করা হয়েছে।সেহেতু মনোযোগের কোনোরকম ঘাটতি ছাড়াই আপনি নিরবচ্ছিন্নভাবে পছন্দের বইটি পড়ে যেতে পারবেন আমাজন কিন্ডল থেকে।Online Education Platform

Khan Academy/খান একাডেমি

খান একাডেমি হলো একটি অলাভজনক অনলাইন প্ল্যাটফর্ম যা শিক্ষামূলক “মাইক্রো-লেকচার” এর সম্পূর্ণ নিখরচায় গ্রন্থাগার সরবরাহ করে থাকে। শেখার জন্য একটি জনপ্রিয় অনলাইন সংস্থান। এটি গণিত, বিজ্ঞান, পদার্থবিজ্ঞান, অর্থনীতি বিষয়গুলি পড়ায়।

খান একাডেমির খ্যাতির বড় দাবি হ’ল কোনও ফি বা গোপন ব্যয় ছাড়াই এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। এটি একাডেমিকদের জন্য অন্যতম সেরা অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম হিসাবে তৈরি করা হয়েছে।

Bloc

ব্লক একটি অনলাইন ইন্টারেক্টিভ প্ল্যাটফর্ম যা ওয়েব ডেভলপমেন্ট, মোবাইল ডেভেলপমেন্ট এবং ডিজাইন সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরণের অনলাইন কোডিং বুটক্যাম্প সরবরাহ করে। শিক্ষার্থীরা স্কাইপ ব্যবহার করে পাঠ্যক্রম জুড়ে সহায়তা এবং গাইডেন্স প্রদান করে এমন অভিজ্ঞ পরামর্শদাতার সাথে জুড়ি তৈরি করে।

এ ছাড়া Codecademy, Iversity, -এর মতন অনেক সাইটেও বিনামূল্যে এবং প্রায় বিনামূল্যে নানা বিষয়ের ওপর কোর্স করা যায়। নিজের প্রয়োজনটা পরিষ্কারভাবে জেনে এ ধরনের অনলাইন কোর্সে যোগ দেয়াই শ্রেয়। সাধারণত ক্যারিয়ার সংশ্লিষ্ট কোর্সই সবাই সম্পন্ন করতে চায়। আবার শখের বশেও কিছু শিখে নিতে পারেন।

পোস্টটি যদি ভালো লাগে তাহলে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিবেন এতে সবাই জানতে পারবে যে অনলাইনে শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম সম্পর্কে এবং Factarticle এর সঙ্গেই থাকার চেষ্টা করবেন।

BY:Factarticle.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *