অর্থনৈতিক শিক্ষা কেন প্রয়োজন? অর্থপ্রাপ্তির পর কিভাবে সেটা কাজে লাগাবেন? | Factarticle.Com            
Factarticle.Com
money

অর্থনৈতিক শিক্ষা কেন প্রয়োজন? অর্থপ্রাপ্তির পর কিভাবে সেটা কাজে লাগাবেন?

অর্থনৈতিক শিক্ষা কেন প্রয়োজন? অর্থপ্রাপ্তির পর economy কিভাবে সেটা কাজে লাগাবেন?

Why economic education is required? How to use it after payment?

অ্যাথলেটের গল্প

আর্থিক জ্ঞান না থাকলে টাকা থাকে না। বেশিরভাগ মানুষ বুঝতে পারে না যে জীবনে কত টাকা আয় হলো,সেটাই বড় কথা নয়, কতো টাকা রাখা গেল সেটাই বড় কথা।

লটারি জয়ের অনেক কাহিনি আপনারা জানেন যে কি করে গরিব থেকে ধনী হয়, আবার গরিব হয়ে পড়ে। তারা প্রচুর আয় করে এবং পুনরায় সেখানে ফিরে যায়,যেখানে শুরু করেছিল।

অথবা সেইসব অ্যাথলেটের গল্প নিচয়ই শুনেছেন , যারা ২৪ বছর বয়সে বছরে লক্ষ ডলার আয় করে আর ৩৪ বছর বয়সে সেতুর নিচে ঘুমায়।

রবার্ট কিয়োসাকি বলেন – সবচেয়ে ধনী ব্যবসায়ীর গল্প

১.১৯২৩ সালের গল্প, বিশ্বের বৃহৎতম স্টিল কোম্পানির হেড চার্লস সোয়াব– পাঁচ বছর টাকা ধার করে বেঁচে থাকার পর সোয়াব সর্বস্বান্ত অবস্থায় মারা যায়।

২.পৃথিবীর সবচেয়ে বড় উপযোগিতার প্রেসিডেন্ট সামুয়েল ইনসুল– ইন্সুল বিদেশের মাটিতে সর্বস্বান্ত অবস্তায় মারা যায়।

৩.বিশ্বের সবচেয়ে বড় গ্যাস কোম্পানির হেড হোয়ার্ড হপসন– হপ্সন শেষে পাগল হয়ে যায়।

৪.তৎকালীন ইন্টারন্যাশনাল ম্যাচ কোম্পানির প্রেসিডেন্ট ইভার ক্রজার– সর্বস্বান্ত হয়ে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে।

৫.ব্যাংক অব ইন্টারন্যাশনাল সেটেলমেন্ট এর প্রেসিডেন্ট লিও ফ্রেজিয়ার– লিও ফ্রেজিয়ার সর্বস্বান্ত হয়ে আত্মহত্যা করে।

৬.নিওইয়র্ক স্টক একচেঞ্জ এর প্রেসিডেন্ট রিচার্ড হুইটনি – সর্বস্বান্ত হয়ে হুইটনি জেলে যায়।

৭.অন্যতম স্টক ফটকাবাদ জেস লিভারপুল এবং প্রেসিডেন্ট হার্ডিংস– জেস লিভারপুল আত্মহত্যা করেন।

পঁচিশ বছর পর তাদের সমাপ্তি ঘটে।freelancer

 

রবার্ট কিয়োসাকি বলেন,

আমরা সন্দিহান যে, এই মানুষগুলোর সাথে কি হয়েছিলো। ১৯২৩ এর সেই সময়ে তাকালে দেখা যায় যে, ১৯২৯ এর আগের মার্কেট ক্রাশ ও মারাত্মক হতাশার সময় ছিল তখন, যার মারাত্মক প্রভাব এই মানুষগুলোর জীবন ধ্বংস করে দেয় বলে জানা যায়।

লেখক বলেন, আমার ধারণা, আগামী ২৫ বছরে এত বেশি উন্নত ও অবনতি হবে যে ঐ মানুষগুলোর উত্থান-পতনকে তা সমান্তরাল করে দেবে।

এজন্য লেখক বলেন,আর্থিক জ্ঞান আমাদের জানা খুবই প্রয়োজন। আর্থিক জ্ঞান না থাকলে টাকা থাকে না

লেখক বলেন যে,তুমি যদি আম্পায়ার স্টেট বিল্ডিং বানাতে চাও তাহলে প্রথমে তোমাকে গভীর গর্ত করে শক্তিশালী ভিত্তি বানাতে হবে।যদি তুমি বাড়ি বানাতে চাও তাহলে তোমাকে পুরু ৬ ইঞ্চি কংক্রিটের একটি স্লাব বানাতে হবে। এখানে অনেক মানুষ ওঁই আছে যারা খুব তাড়াতাড়ি ধনী হওয়ার জন্য ৬ ইঞ্চি স্লাবের উপর আম্পায়ার স্টেট বিল্ডিং বানাতে চেষ্টা করে।economoy topic

রবার্ট কিয়োসিকো সমস্যা সমাধানে যা বলেন,

রবার্ট কিয়সিকো বলেন, সম্পদ ও ঋণের মধ্যেকার পার্থক্য আপনাকে বুঝতে হবে এরপর সম্পদ কিনতে হবে। যদি আপনি ধনী হতে চান তাহলে এসব জানতে হবে-এটাই একমাত্র নিয়ম। বেশিরভাগ মানুষ আর্থিক কষ্টে ভোগে কারন তারা জানেনা যে,সম্পদ ও ঋণের মধ্যে তফাৎটা কি?

লক্ষ লক্ষ শিক্ষিত মানুষ তাদের পেশায় বেশ ভালোভাবে লেগে থাকে, কিন্তু দেখা যায় পরবর্তীতে তারা অর্থনৈতিক কষ্টে পড়ে যায়।তারা শ্রম দেয়,কিন্তু এগিয়ে যেতে পারে না।কিভাবে অর্থ বানানো যায়,সেটা নয়, অর্থপ্রাপ্তির পর কিভাবে সেটা ব্যায় করতে হয়,এই বিদ্যা তাদের থাকে না।

অর্জিত অর্থ আপনি কিভাবে ব্যায় করেন, এই অর্থ অন্যদের হাত থেকে কিভাবে বাচিয়ে রাখেন, কতদিন আপনি সেটা রাখতে পারেন ও সেই টাকা আপনার কাজে কিভাবে লাগতে পারে- এই সবকিছুর নামই হলো আর্থিক প্রবনতা।

অনেক মানুষ জানেনা যে,তারা আর্থিক কষ্টে কেন পড়ে, কারন তারা আর্থিক বিবৃতি বুঝে না। একজন মানুষ উচ্চশিক্ষিত ও পেশাগত জীবনে সফল হলেও আর্থিকভাবে অশিক্ষিত হতে পারে। তারা অনেক সময় প্রয়োজনের থেকে বেশি খাটে, কারন তারা শ্রম দিতে শিখেছে, কিন্তু অর্থপ্রাপ্তির পর কিভাবে সেটা কাজে লাগানো যায়,তা শেখেনি।analytics economy

এজন্যই মূলত বলা যায় যে,আর্থিক জ্ঞান না থাকার কারণে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যবসায়িরা পঁচিশ বছর পর তাদের সবারই সমাপ্তি ঘটে।

তুমি ধনী হতে চাও

এখানে রবার্ট কিয়োসাকি খুবই জোর দিয়ে বলেছেন যে,যদি তুমি ধনী হতে চাও এবং তোমার অর্থপ্রাপ্তি বাচিয়ে রাখতে চাও তাহলে তোমার আর্থিক শিক্ষা প্রয়োজন পড়বে।

এজন্য আসুন আমরা শিক্ষা শব্দটির উপর জোর দেয়ার পাশাপাশি আর্থিক শিক্ষা উপরই জোর দেই। এতে আমরা আর্থিক কষ্ট থেকে মুক্তি পাবো।

পোস্টটি যদি ভালো লাগে তাহলে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিবেন-এতে যেটা হবে,সবাই আর্থিক বিষয়ে জ্ঞান লাভ করবে। যদি আপনার মাধ্যমে কেউ একজন এই পোস্টটা দেখে আর্থিক কষ্ট থেকে মুক্তি পায় সেটাই আমাদের প্রাপ্তি এবং Factarticle.com  এঁর সঙ্গেই থাকবেন।

BY:Factarticle.com

Shahin Hasan

Add comment

Ads

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.

Most discussed

shares